ই-নলেজ এ আপনাকে সুস্বাগতম।এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং ই-নলেজ এর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...।
menu search
person
ফেসবুক পেজ আমাদের ফেসবুক গ্রুপ
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (বিশারদ) (2,079 পয়েন্ট)  
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন
122 বার প্রদর্শিত
এই উত্তরেও যদি না হয় তবে বলুন আরো উত্তর দিতে প্রস্তুত
সুস্বাস্থ্য বজায় রাখা সামগ্রিক সুস্থতার জন্য গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি আপনাকে দীর্ঘ, সক্রিয় এবং পরিপূর্ণ জীবন যাপন করতে সাহায্য করতে পারে। আপনার স্বাস্থ্য বজায় রাখতে এবং অসুস্থতা প্রতিরোধ করার জন্য আপনি অনেক কিছু করতে পারেন এবং এটি করার সবচেয়ে সহজ উপায়টি আপনার ব্যক্তিগত পরিস্থিতি এবং প্রয়োজনের উপর নির্ভর করবে।

ভাল স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য কিছু সাধারণ টিপস অন্তর্ভুক্ত:

১. একটি স্বাস্থ্যকর, সুষম খাদ্য খাওয়া: এর অর্থ হল প্রচুর ফল, শাকসবজি, গোটা শস্য এবং চর্বিহীন প্রোটিন পাওয়া এবং আপনার চিনি, লবণ এবং অস্বাস্থ্যকর চর্বি খাওয়া সীমিত করা।

২. নিয়মিত ব্যায়াম করুন: সপ্তাহের বেশিরভাগ দিন কমপক্ষে 30 মিনিটের মাঝারি-তীব্র ব্যায়ামের লক্ষ্য রাখুন, যেমন দ্রুত হাঁটা বা সাইকেল চালানো।

৩. পর্যাপ্ত ঘুম পাওয়া: আপনার শরীরকে বিশ্রাম দিতে এবং নিজেকে মেরামত করতে প্রতি রাতে 7-9 ঘন্টা ঘুমের লক্ষ্য রাখুন।

৪. মানসিক চাপ কমানো: স্ট্রেস পরিচালনা করার জন্য স্বাস্থ্যকর উপায়গুলি খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন, যেমন ধ্যান, যোগব্যায়াম বা ব্যায়ামের মাধ্যমে।

৫. ঝুঁকিপূর্ণ আচরণ এড়ানো: এর মধ্যে রয়েছে ধূমপান এবং অতিরিক্ত অ্যালকোহল সেবন এড়ানো, সেইসাথে যৌন সংক্রামক সংক্রমণ প্রতিরোধে নিরাপদ যৌনতা অনুশীলন করা।

৬. ভ্যাকসিন এবং স্ক্রিনিংয়ের সাথে আপ টু ডেট থাকা: সুপারিশকৃত টিকাদানের সময়সূচী অনুসরণ করুন এবং ক্যান্সার এবং হৃদরোগের মতো অবস্থার জন্য নিয়মিত স্ক্রিনিং পান।

৭. প্রয়োজনে চিকিৎসার পরামর্শ চাওয়া: আপনি যদি উপসর্গ অনুভব করেন বা আপনার স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ থাকে, তাহলে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর কাছ থেকে চিকিৎসা পরামর্শ নিতে দ্বিধা করবেন না।

1 উত্তর

thumb_up_alt 1 টি পছন্দ thumb_down_alt 0 অপছন্দ
করেছেন (বিশারদ) (1,806 পয়েন্ট)  
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন
১. নিয়মিত ও পরিমিত খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলুন। খাবার তালিকায় আঁশযুক্ত খাবার বাড়ান। আমিষ ও চর্বিজাতীয় খাবার কমিয়ে আনুন। ভাজা-পোড়া ও ফাস্টফুড জাতীয় খাবার সম্পূর্ণ বন্ধ করুন। ২. খাবারের শুরুতে এক থেকে দুই গ্লাস পানি পান করুন। খাবার শেষে অন্তত এক থেকে দুই ঘণ্টা পর পানি পান করবেন। ৩. লালমাংস (চার পা বিশিষ্ট পশুর মাংস), দোকানের কেনা মিষ্টি, ঘি, ডালডা, ডাল ও ডালজাতীয় খাবার কম খান। ৪. ফলমূল ও শাকসবজি বেশি করে খাদ্য তালিকায় রাখুন। একবারে বেশি করে খাওয়ার চেয়ে অল্প অল্প করে বার বার খেতে পারেন। ৫. রাতে তাড়াতাড়ি খাওয়া উচিত। খাওয়ার এক থেকে দুই ঘণ্টা পর শোওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। ৬. সুস্বাস্থ্য ও ফিগারের জন্য নিয়মিত ও পরিমিত ঘুম প্রয়োজন। দিনে শোওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করে রাতে তাড়াতাড়ি ঘুমের অভ্যাস গড়ে তুলুন। ৭. যাদের মেদ বা ভুড়ি জমেছে তারা নিয়মিত ও সঠিক ব্যায়াম করতে পারেন। এর জন্য একজন ফিজিওথেরাপি বিশেষজ্ঞের পরামর্শ গ্রহণ করা যেতে পারে। মনে রাখবেন ভুল ব্যায়াম ও অনিয়ন্ত্রিত 'জিম এক্সারসাইজ' আপনার সমস্যা আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে। ৮. প্রতিদিন সমতল জায়গায় হাঁটার চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন হাঁটা সর্বোৎকৃষ্ট ব্যায়াম। নিয়মিত অন্তত এক থেকে দুই ঘণ্টা হাঁটার অভ্যাস করুন। ৯. ভোরে ঘুম থেকে উঠার অভ্যাস গড়ে তুলুন। সকালে স্কুল, কলেজ বা অফিসে যাওয়ার আগে গোসল সেরে নিন। ১০. বেশি উঁচু তলায় উঠার দরকার না হলে, লিফটের পরিবর্তে সিঁড়ি ব্যবহার করুন। ১১. প্রতিদিন ছয় থেকে সাত ঘণ্টা ঘুমের অভ্যাস গড়ুন।
শুধু খাবার খেলেই স্বাস্থ ঠিক থাকে না।উত্তর না জেনে উত্তর করবেন না।
অক্সিজেন সিলিন্ডার কোথায় পাবেন এ নিয়ে চিন্তায় আছেন?
আপনার এই চিন্তা দূর করতে আমরা আছি আপনার পাশে। আপনার অসুস্থ বৃদ্ধ বাবা-মা, প্রিয়জন কিংবা করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য নিজ বাসায় বসেই এখন অক্সিজেন সিলিন্ডার ভাড়া কিংবা কিনতে পারবেন আমাদের কাছ থেকে।
আমাদের দক্ষ ও প্রশিক্ষিত টিম রোগীর প্রয়োজনে ২৪ ঘন্টা ঢাকা ও ঢাকার বাইরে অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করছে।
অর্ডার করার সাথে সাথেই আমাদের টিম আপনার বাসায় পৌঁছে দিচ্ছে প্রয়োজনীয় এই আইটেম। তাই দেরি না করে এখনই যোগাযোগ করুন আমাদের ঠিকানায়। ভাল মানের পণ্য দেয়া এবং আপনাদের বিশ্বস্ততা অর্জনই আমাদের লক্ষ্য।
অক্সিজেন সিলিন্ডার ছাড়াও আমাদের কাছে পেয়ে যাচ্ছেন ইসলামের চায়না ও বি ও সি'র লিন্ডি ব্র্যান্ডের অক্সিজেন সিলিন্ডার, এছাড়াও আছে পালস্ অক্সি মিটার,নেবুলাইজার মেশিন, ফেসিয়াল স্টিমার , সাকশন মেশিন, পিপিই, ফেইস মাস্ক, হ্যাক্সিসল। পাশাপাশি অক্সিজেন সিলিন্ডার রিফিল করার কাজেও আমরা আছি আপনাদের পাশে।
যেকোন সময়, যেকোন সেবার জন্য আমাদের সাথেই থাকুন।
https://maishacare.com/product-category/portable-oxygen-cylinder/

সংশ্লিষ্ট প্রশ্নগুচ্ছ

"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ariyan Khan Habil (জ্ঞানী) (719 পয়েন্ট)  
0 টি উত্তর
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Anisa Islam (বিশারদ) (1,745 পয়েন্ট)  
1 উত্তর
ই-নলেজ বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইট। এখানে আপনি প্রশ্ন-উত্তর করার মাধ্যমে নিজের সমস্যার সমাধানের পাশাপাশি দিতে পারেন অন্যদের সমস্যার নির্ভরযোগ্য সমাধান! বিভিন্ন ব্যক্তিগত সমস্যা, পড়ালেখা, ধর্মীয় ব্যাখ্যা, বিজ্ঞান বিষয়ক, সাধারণ জ্ঞান, ইন্টারনেট, দৈনন্দিন নানান সমস্যা সহ সকল বিষয়ে প্রশ্ন-উত্তর করতে পারবেন! প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে বাংলা ভাষায় উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্য!
তাই আজই যুক্ত হোন ই-নলেজে আর বাড়িয়ে দিন আপনার জ্ঞানের গভীরতা...!
DMCA.com Protection Status


...